tiktok vs trump

 

 

করোনা পরিস্থিতিতে বিশ্বের বেশিরভাগ দেশের অবস্থা ভয়াবহের দিকে এগোছে।এমতাবস্থায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রথম থেকে করোনা ভাইরাস চিনের ল্যাব তৈরি বলে দাবি করছেন। যদিও চীন সরকার প্রথম থেকেই সেই দাবি নাকচ করে দিয়েছে। অপরপক্ষে ভারতের সাথে বর্তমান চীনের সম্পর্ক ভালো নয় কারণ সীমান্ত নিয়ে ইতিমধ্যে ভারত ও চিন সংঘর্ষের ২০ জন বীর সৈনিক জাওয়ান শহীদ হয়েছেন। পরবর্তীকালে সুরক্ষার পক্ষে ক্ষতিকারক 59 টি চিনা আ্যপ নিষিদ্ধ করেছিলভারত সরকার। তার মধ্যে টিকটক ( tiktok ) , হ্যালো এর মত জনপ্রিয় আ্যপগুলি ছিল।

Advertisement

tiktok vs trump

Tiktok banned in America!

এবার কি ভারতের দেখানো পথে মার্কিন প্রশাসন কি চিনা আ্যপ টিকটক নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে চলেছে? শুক্রবার ট্রাম্প বলেন, আমরা আমেরিকায় টিকটক নিষিদ্ধ করতে চলেছি (Tiktok banned in America!)। মার্কিন প্রশাসনের দীর্ঘদিনের অভিযোগ টিকটক এর মতো চিনা অ্যাপগুলি দেশের সুরক্ষার পক্ষে ক্ষতিকারক। মার্কিন প্রেসিডেন্ট এও বলেন যে, চীনা অ্যাপ টিকটককে এর মত সংস্থাকে নিষিদ্ধ করতে প্রয়োজন হলে জরুরি অর্থনৈতিক ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারেন। এই প্রসঙ্গে টিকটক এর সিইও এবং বাইটড্যান্সের সিইও কোভিন মায়ের আগেই জানিয়েছেন – “আমার রাজনৈতিক নই, আমার রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন নিই না এবং আমাদের কোনো ও রাজনৈতিক আ্যজেন্ডা ও নেই আমাদের একমাত্র উদ্দেশ্য প্রানবন্ত রাখা এবং থাকা যাতে সকলের জীবন উপভোগ করতে পারে “। যাইহোক শেষ পর্যন্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট চিনা আ্যপ টিকটককে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন কিনা তার দিকেই তাকিয়ে রয়েছে আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ মহল। তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট এর এই দিনের বক্তব্য যে চিনা প্রশাসনকে চাপে ফেলবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

 

Read Previous Post

“ফিরিয়ে দিন অধিকার” দাবীতে ফের একবার প্রশিক্ষিত টেট উত্তীর্ণরা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিবাদের ঝড় তুললো!

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.