Insulting remarks to SSC candidates

 

নিশিকান্ত ভূঞ্যাঃ- দীর্ঘদিন ধরে মামলার জালে জড়িয়ে আছে SSC। উচ্চশিক্ষিত যুবক যুবতীরা হতাশার অন্ধকারে নিমজ্জিত। এমতাবস্থায় তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্য সোশাল মিডিয়ায় প্রশ্ন উত্তর দেওয়ার সময় সোহেল রানা নামে এক যুবক প্রশ্ন করেন যে, ” এস এস সি কবে হবে ভাই? বুড়ো হয়ে গেলাম তো।” এই প্রশ্নের উত্তরে তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্য বলেন, “বুড়ো যদি হয়ে থাকেন তাহলে বার্ধক্য ভাতার জন্য অ্যাপ্লাই করতে পারেন আপাতত। ” যদিও তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র এটা জোকস হিসেবে বলেন। যা নিয়ে সোশাল মিডিয়ায় রীতিমতো ঝড় ওঠে। SSC নিয়ে তৃণমূল মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্যের মন্তব্যের সমালোচনা করলেন বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ইউনিট সভাপতি সিদ্ধার্থ মাইতি।

Insulting remarks to SSC candidatesInsulting remarks to SSC candidates

Advertisement

বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ইউনিট সভাপতি সিদ্ধার্থ মাইতি সোশাল মিডিয়ায় বলেন, ” শিক্ষিত সমাজ রাজনীতি থেকে দূরে সরে যায় তার কারণ দেবাংশুর মতো মূর্খ যদি মুখপাত্র হয় । বার্ধক্যভাতা নেওয়ার জন্য কারো বাবা মা রক্ত জল করে ছেলে মেয়েকে পড়াশোনা করান না। সেদিন খুব আনন্দিত হয়ে ছিলাম যেদিন দিদি ভালবেসে বুকে টেনে নিয়ে ছিলেন। ভেবেছিলাম এবার যুব সমাজের কথা তোমার বক্তব্যের সঙ্গে পরিস্ফুট হবে। কিন্তু একি দেখি?? ছেলেটির প্রশ্ন নিছকই মিথ্যে নয় সেটা আপামর পশ্চিমবঙ্গ বাসি জানে। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে তুমি একটা দলের মুখপাত্র তোমাকে কারন দেখাতে হতো কেন হয়নি বা না হওয়ার পিছনে সরকারের কোনো দোষ নেই। তুমি বলছো বার্ধক্যভাতা নেওয়ার জন্য আবেদন করতে।”

সোশ্যাল মিডিয়ায় বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ইউনিট সভাপতি সিদ্ধার্থ মাইতির মন্তব্যকে উচ্চ শিক্ষিত যুবক যুবতীরা স্বাগত জানিয়েছেন ।

 

আরও পড়ুন

তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্যের মন্তব্যের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষমা চাওয়ার দাবী উঠলো ? তবে কি উচ্চশিক্ষিত যুবক যুবতীর কাছে ক্ষমা চাইবেন?

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.