education minister

 

নিশিকান্ত ভূঞ্যাঃ-  দীর্ঘদিন সাত বছর ধরে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ রয়েছে। উচ্চ শিক্ষিত যুবক যুবতীরা হতাশার অন্ধকারে নিমজ্জিত। নতুন করে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি কবে প্রকাশ হবে সেই দিকেই তাকিয়ে রয়েছে লক্ষ লক্ষ বেকার যুবক যুবতীরা। এদিকে আপার প্রাইমারি শিক্ষক চাকুরী প্রার্থীরা নিয়োগ প্রক্রিয়া কবে শেষ হবে সেই দিকেই তাকিয়ে রয়েছে।

এমতাবস্থায় এসএসসির শিক্ষক নিয়োগের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, “যাও কেস করো, ওই করেই তো ৫ বছর শেষ করে দিলো। আমরা আপারের মেরিট লিস্ট বের করে দিয়েছিলাম। আদালতের অর্ডার আসলে আমরা রেডি আছি।” অর্থাৎ শিক্ষামন্ত্রী চাকুরী প্রর্থীদের ঘাড়ে দায় চাপিয়ে দিতে চাইছেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, আপার প্রাইমারি নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে স্কুল সার্ভিস কমিশনের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে ভুরি ভুরি অভিযোগ জমা পড়েছে স্কুল সার্ভিস কমিশনের অফিসে। এছাড়া কলকাতা হাইকোর্টে অনেক মামলা চলছে স্কুল সার্ভিস কমিশনের মেরিট লিস্টের নানা অসঙ্গতি নিয়ে।

Advertisement

 education minister

সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে যে, আপার প্রাইমারি চাকুরি প্রর্থীরা আমরন অনশনের জন্য প্রস্তুতি নিতে চলেছে। এস এস সি আপার প্রাইমারির মেরিট লিস্টের হবু শিক্ষক অধিকার মঞ্চের সম্পাদক আব্দুল মোমেন গাজী বলেন যে, আমাদের মঞ্চ প্রতিটা প্রার্থীর পাশে দাঁড়াবে যতক্ষণ না পর্যন্ত তাদের জব কনফার্ম হয় ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা আমরণ অনশন করব। আগস্ট মাসের শেষ থেকে আমরা লাগাতার আন্দোলন কর্মসূচি নিতে চলেছি। সকল শুভবুদ্ধি সম্পন্ন শিক্ষিত মানুষ এবং সকল শ্রেণীর মানুষকে আমাদের পাশে থাকার জন্য একান্তভাবে আহবান করা হচ্ছে।

 

বিজেপির মানবিক রূপ দেখলো রাজ্যবাসী !!!!! রাজ্যবাসীর কাছে কি বিজেপিই একমাত্র ভরসা????

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.