নিশিকান্ত ভূঞ্যাঃ-  করোনা পরিস্থিতি ক্রমশ ভয়াবহের দিকে এগোচ্ছে। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থেকে বাঁচতে মানুষ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে গিয়ে তা এখন মানসিক দূরত্বে পৌঁছে যাচ্ছে। করোনা রোগী ও তার পরিবারকে কখনো সামাজিক ভাবে হেনস্তা হতে হচ্ছে। আবার কখনো কখনো বিনা চিকিৎসাতে মারা যাওয়ার ঘটনা ঘটতে দেখা যাচ্ছে। এবার এক হাড়হিম করা ঘটনার সাক্ষী হলো অন্ধপ্রদেশের রাজ্যবাসী।


পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে যে, নারাসাইয়া নামে এক ব্যক্তি দিন চারেক আগে কোভিড আক্রান্ত হয়ে মারা যান। পরবর্তীকালে এই ব্যক্তির পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা নারাসাইয়ার স্ত্রী ও সন্তানদের একেবারে ত্যাজ্য করেন। যার ফলে মানসিক অবসাদে ভুগতে থাকেন নারাসাইয়ার স্ত্রী পরিমি সুনীতা, তাঁর দুই ছেলে মেয়ে লক্ষ্মী অপর্ণা ও নারাসাইয়া ফণীকুমার। তারপর তারা তিনজনে নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন। এই ঘটনা প্রমান করে দিচ্ছে যে করোনা ভাইরাস পরিবারের মধ্যে ও সমাজের মানুষের মধ্যে বিভেদের দেওয়াল তুলে দিচ্ছে।

Advertisement

 

এই ঘটনা প্রমান করে দিচ্ছে যে করোনা রুগী ও তার পরিবার কতটা অসহায়। সাধারণ মানুষ কবে করোনা ভাইরাসের প্রভাব কাটিয়ে আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে সেই আশার দিন গুনছে।

 

আরও পড়ুন

রাজ্যে দুর্নীতি রুখতে মরিয়া বিজেপি ! !! এক ফোনেই হবে বাজিমাৎ!!!

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.