WEST BENGAL RECOGNIZED UN-AIDED MADRASA TEACHERS ASSOCIATION

 

নিশিকান্ত ভূঞ্যাঃ-  “ওয়েষ্ট বেঙ্গল রিকগনাইজ্ড আন-এডেড মাদ্রাসা টিচার্স অসোসিয়েশন (WEST BENGAL RECOGNIZED UN-AIDED MADRASA TEACHERS ASSOCIATION)”এর পক্ষ থেকে 14/09/2020 তারিখে মহাকরণে পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম মহাশয়ের সঙ্গে রাজ্য সরকার অনুমোদিত 235 টি আন-এডেড মাদ্রাসার 2500 শিক্ষক-শিক্ষিকাদের মাসিক বেতন ও ছাত্র-ছাত্রীদের মিড-ডে-মিল সহ বিভিন্ন ইনসেন্টিভের জন্য আলোচনা ছিলো।

WEST BENGAL RECOGNIZED UN-AIDED MADRASA TEACHERS ASSOCIATION

Advertisement

সংগঠনের রাজ্য সভাপতি এবং সম্পাদক মহাকরণে উপস্থিত হয়েছিলেন । এই মাদ্রাসার শিক্ষক শিক্ষিকারা যে দীর্ঘ আট নয় বছর ধরে কোনো রূপ বেতন পাচ্ছেন না এবং ছাত্র ছাত্রীরা যে সমস্ত রকম সরকারি সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত তা মন্ত্রী মহাশয়ের কাছে তুলে ধরেন। এমনকি মন্ত্রী মহাশয় যে 2015 সালে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তাও মনে করিয়ে দেন। এই মাদ্রাসার 3 জন করে শিক্ষক যে কেন্দ্র সরকারের কাছ থেকে এসপিকিউএম এর টাকা পেতেন তাও আজ দীর্ঘ ছয় বছর ধরে বন্ধ হয়ে গেছে।

সংগঠনের রাজ্য সভাপতি সেখ জাভেদ মিঁয়াদাদ বলেন, রাজ্য সরকারের সদিচ্ছার অভাব । মূলকথা হলো এই সরকার সংখ্যালঘুদের জন্য জন সাধারণের সামনে যে উন্নয়নের ঢাক পিটিয়ে থাকেন, তা সবকিছুই লোক দেখানো। ভেতরের খবর কিন্তু বলছে অন্য কথা। ফিরহাদ সাহেবের কথায় তা পরিষ্কার হলো- তিনি কিছুই করতে পারবেন না। উনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির কোর্টে বল ঠেলে দিয়ে বলেন, আপনারা মুখ্যমন্ত্রীকে একটা চিঠি করেন আমি তা উনার কাছে পৌঁছে দেবো এবং আপনাদের সমস্যা সমাধানের জন্য অনুরোধ করবো। উনি আরও বলেন উনি মাইনোরিটি দপ্তরের সচিবের সঙ্গে আলোচনায় বসার একটি ব্যবস্থা করে দিবেন । উনি বলছেন উনার কোন ক্ষমতা নেই।

তাহলে পরিষ্কার করে বলতে হবে সংখ্যালঘুদের কথা রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কোন ব্যক্তি শুনবেন ? মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি তিনি নিজেই তো মাদ্রাসা দফতরের পূর্ণ মন্ত্রী! উনি তো এই বিষয়ে কিছুই মুখ খুলছেন না ! তাহলে পশ্চিম বাংলার আধুনিক মাদ্রাসা শিক্ষা কি বন্ধের পথে ? সংগঠনের রাজ্য সম্পাদক পলাশ রম বলেন – রাজ্য সরকারের আসল মুখোশ টা বেরিয়ে এসেছে । এই সরকার একের পর এক প্রতারণা করেই চলেছেন । আমরা খুব শীঘ্রই নবান্ন অভিযানের ডাক দেবো। আমাদের দীর্ঘ দিনের মাসিক বেতনের দাবী পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে। এই সরকারের তুঘলকি চিন্তা ভাবনার কারণে বন্ধ হতে চলেছে রাজ্যের 235 টি আন-এডেড মাদ্রাসা, 2500 শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং 40000 ছাত্র- ছাত্রীদের ভবিষ্যত ।

 

সকল খবর সবার আগে ফেসবুকে ফ্রী পেতে চাইলে আমাদের পেজ লাইক করুন। Click Here..

Advertisement

 

ওয়েস্টবেঙ্গল রেকগনাইজ আন এডেড মাদ্রাসা টিচার অ্যাসোসিয়েশন এর পক্ষ থেকে সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী কাছে ডেপুটেশন!!! তাহলে কি সংখ্যালঘুরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর আস্থা রাখতে পারছে না??

Leave a Reply

Your email address will not be published.