wb school service commission liog

 

নিশিকান্ত ভূঞ্যাঃ-  দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া থমকে রয়েছে। উচ্চ শিক্ষিত যুবক যুবতীরা আশার দিন গুনছে কবে সুদিন আসবে। এমতাবস্থায় তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্য সোশাল মিডিয়ায় প্রশ্ন উত্তর দেওয়ার সময় সোহেল রানা নামে এক যুবক প্রশ্ন করেন যে, ” এস এস সি কবে হবে ভাই? বুড়ো হয়ে গেলাম তো।” এই প্রশ্নের উত্তরে তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্য বলেন, “বুড়ো যদি হয়ে থাকেন তাহলে বার্ধক্য ভাতার জন্য অ্যাপ্লাই করতে পারেন আপাতত। ” যদিও তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র এটা জোকস হিসেবে বলেন। এই নিয়ে সোশাল মিডিয়ায় উচ্চ শিক্ষিত যুবক যুবতীরা ক্ষোভে ফেটে পড়ছে।

Advertisement

এই পরিস্থিতিতে তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ আজ সোশাল মিডিয়ায় মন্তব্য করেন , “এস এস সি আপার প্রাইমারি (SSC Upper Primary) নিয়োগের বিষয়ে রাজ্য সরকার যথাযথ সক্রিয়তা দেখাচ্ছে। বিষয়টি আপাতত কলকাতা হাইকোর্টের অধীনে। মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এই সংক্রান্ত বিষয়ে জানিয়েছেন, নিয়োগের প্যানেল আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে। আদালত অনুমোদন দিলেই সঙ্গে সঙ্গে শিক্ষা দপ্তর নিয়োগ সংক্রান্ত পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে প্রস্তুত। বিষয়টির দ্রুত ফয়সালার জন্য কর্তৃপক্ষের তরফে আদালতে অনুরোধ করা হয়েছে। শিক্ষক ও আনুষঙ্গিক নিয়োগ সংক্রান্ত অন্যান্য বিষয় এবং শিক্ষকদের আন্তঃজেলা বদলির বিষয়টিতে শিক্ষা দপ্তর নজর রেখেছেন। চলতি প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যথাযথ সময়ে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী বা শিক্ষামন্ত্রী যা জানানোর জানাবেন। শিক্ষক ও এই সংক্রান্ত কর্মপ্রার্থীদের প্রতি যথাযথ দায়িত্বপালনে সরকার 2011 সাল থেকেই বদ্ধপরিকর।”

তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ এর মন্তব্যের পর উচ্চ শিক্ষিত যুবক যুবতীদের ক্ষোভ প্রশমিত হয় কিনা তা দেখার বিষয়।

 

আরও পড়ুন

তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্যের মন্তব্যের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষমা চাওয়ার দাবী উঠলো ? তবে কি উচ্চশিক্ষিত যুবক যুবতীর কাছে ক্ষমা চাইবেন?

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published.